ডেস্ক রিপোর্ট

১৫ এপ্রিল ২০২২, ৫:৪৫ অপরাহ্ণ

ফেসবুকে মেয়ে সেজে জাফলংয়ে এনে মাদ্রাসা শিক্ষককে হত্যা, প্রধান আসামি গ্রেফতার

আপডেট টাইম : এপ্রিল ১৫, ২০২২ ৫:৪৫ অপরাহ্ণ

শেয়ার করুন

ফেসবুকে মেয়ে সেজে সিলেটে এনে মাদ্রাসা শিক্ষককে খুন করার ঘটনার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আটককৃতের নাম শামছুল ইসলাম। সে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ থানার দাদনচক মিয়াপাড়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে। সে একজন চিহ্নিত প্রতারক ও দাগী অপরাধী।

জানা যায়, মোবাইল ফোনে পরিচয়, চ্যাটিং অত:পর জাফলংয়ে এনে মুক্তিপণ চেয়ে না দেয়ায় তাকে হত্যা করা হয়। হত্যাকান্ডের শিকার ব্যক্তির নাম কাউছার আহমদ রাজু(৩২) । তিনি সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার কালাম বহরপুর গ্রামের আব্দুল বাছিদের ছেলে।

এদিকে এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় গোয়াইনঘাট থানায় আজ শুক্রবার (১৫ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২ টায় প্রেস ব্রিফিং করেন সিলেট জেলা পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন পিপিএম।

তিনি সাংবাদিকদের জানান, ধৃত শামছুল একজন পেশাদার অপরাধী এবং আইটি এক্সপার্ট। চলতি মাসের ৯ তারিখে সে জাফলংয়ের একটি আবাসিক হোটেলে অবস্থান নিয়ে এলাকায় একটি বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে অবস্থান নেয়। ধৃত অপরাধী মোবাইল ফোনে নিহতের সাথে ফেইক আইডি দিয়ে পরিচয় এবং তাকে জাফলং এনে মোটা অংকের টাকা দাবি করেছিল। টাকা এবং তার কথা মত না চলার কারণে ফিল্মি স্ট্যাইলে জিম্মি করে হোটেল রুম থেকে ভিকটিমকে ১টি ব্যাটারী চালিত অটো রিক্সায় করে সীমান্ত এলাকায় একটি পাহাড়ে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রতীয়মান হয়েছে। ধৃত শামছুল একজন পেশাদার ও দাগী অপরাধী। তার ব্যাপারে আরও খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে। তার কাছ থেকে ৪টি মোবাইল ফোন, ১টি খেলনা পিস্তল, ১টি কম্পিউটার হার্ডডিস্ক উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় আরও জড়িত আছে কি না তা তদন্তাধীন রয়েছে। এদিকে নিহতের লাশ উদ্ধার পরবর্তী ময়না তদন্তের জন্য সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেলে কলেজে পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, অপরাধ দমনে পুলিশ সব সময় জিরো ট্রলারেন্স নীতি অনুসরণ করে। এই হত্যাকান্ডে লাশ উদ্ধারের ২ ঘন্টার ভেতরেই ঘাতককে গ্রেফতারে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

শেয়ার করুন