ডেস্ক রিপোর্ট

১৬ আগস্ট ২০২২, ১২:২৫ অপরাহ্ণ

আরবি ১৪৪৪ হিজরি প্রথম উমরার উদ্দেশ্যে সিলেট ছাড়লেন শতাধিক হাজী

আপডেট টাইম : আগস্ট ১৬, ২০২২ ১২:২৫ অপরাহ্ণ

শেয়ার করুন

মক্কা-মদিনা মুসলিমদের গভীর আবেগ-অনুভূতির অংশ। এ দুটি স্থানের সাথে মুসলমানদের সোনালি ইতিহাস জড়িত রয়েছে। কোনো মুসলমান একবার এ দুটি স্থান সফর করলে তার অন্তরে বারবার এ স্থানগুলোর প্রতি ভালোবাসা ও আকর্ষণ জন্মে। ইসলামের একটি সৌন্দর্যময় ইবাদাত হিসেবে উমরাহ মুসলিমদের আকাক্সিক্ষত বস্তু। এর মাধ্যমে সামগ্রিক ঈমানের প্রতিফলন ঘটে।

আজ মঙ্গলবার সকালে ‘খাজা এয়ারলাইনার হজ্ব, উমরাহ, ট্র্যাভেল এ্যান্ড র্টুস’-এর উদ্যোগে আরবী ১৪৪৪ হিজরী সিলেট থেকে  প্রথম উমরার উদ্দেশ্যে শতাধিক হাজী মক্কার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছেন।

সিলেট এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যাত্রা কালে ‘খাজা এয়ারলাইনার হজ্ব, উমরাহ, ট্র্যাভেল এ্যান্ড র্টুস’-এর প্রোপাইটর খাজা মঈন উদ্দিন জালালাবাদী বলেন, প্রতিবছরের মতো এবারও আমরা হাজীদেরকে নিয়ে মক্কা-মদিনার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছি। হাজীরা যাতে সুন্দরভাবে মক্কা-মদিনায় উমরাহ সম্পন্ন করতে পারেন সে ব্যাপারে আমরা সর্বাত্মক সহযোগিতা ও চেষ্টা করে থাকি। এছাড়া উমরাহ পরবর্তীকালীন মক্কা-মদিনা এবং এতদঞ্চলের ঐতিহাসিক স্থানগুলো সফরেও আমার প্রতিষ্ঠান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। উল্লেখ্য, প্রতিবছরই ‘খাজা এয়ারলাইনার হজ্ব, উমরাহ, ট্র্যাভেল এ্যান্ড র্টুস’-এর উদ্যোগে হাজীদেরকে নিয়ে মক্কা-মদিনায় সফর করা হয়। ধারাবাহিক কয়েকটি পর্বে এ উমরাহ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়ে থাকে। এ বছরই প্রথম শতাধিক হাজীকে নিয়ে মক্কা-মদিনার উদ্দেশ্যে সিলেট ত্যাগ করে ‘খাজা এয়ারলাইনার হজ্ব, উমরাহ, ট্র্যাভেল এ্যান্ড র্টুস’। ‘খাজা এয়ারলাইনার হজ্ব, উমরাহ, ট্র্যাভেল এ্যান্ড র্টুস’-এর প্রোপাইটর খাজা মঈন উদ্দিন জালালাবাদী সকলের আন্তরিক দোয়া কামনা করেন। যাত্রার প্রাক্কালে নিরাপদ উমরাহ পালনের জন্য মোনাজাত পরিচালনা করেন প্রোপাইটর খাজা মঈন উদ্দিন জালালাবাদী।

শেয়ার করুন