ডেস্ক রিপোর্ট

২৬ আগস্ট ২০২২, ২:২৩ অপরাহ্ণ

প্রবাসীদের সম্মান করুন নতুবা ভিক্ষার থালা নিয়ে দাঁড়াতে হবে: মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল

আপডেট টাইম : আগস্ট ২৬, ২০২২ ২:২৩ অপরাহ্ণ

শেয়ার করুন

বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম মহাসচিব, যুবদল কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাবেক সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, প্রবাসীদের তুচ্ছতাচ্ছিল্য করবেন না। তাদেরকে সম্মান দিয়ে কথা বলুন, অবহেলা করবেন না। কারণ প্রবাসীদের ঘামে ভেজা রক্ত পানি করা রেমিট্যান্সে দেশের অর্থনীতি এখনো টিকে আছে। বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি বন্ধ করুন। নতুবা প্রবাসীরা রেমিট্যান্স পাঠানো বন্ধ করলে আওয়ামী অবৈধ মন্ত্রী-এমপিদের রাস্তায় ভিক্ষার থালা নিয়ে দাঁড়াতে হবে।

২৫ আগস্ট বাদ মাগরিব সিলেট নগরীর কদমতলী পয়েন্টে জ্বালানি খাতে নজিরবিহীন দুর্নীতি, লোডশেডিং, পরিবহনের ভাড়া ও দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সিলেট মহানগর বিএনপির ২৬নং ওয়ার্ড কর্তৃক আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

তিনি আরো বলেন, জ্বালানি তেল, গ্যাস, বিদ্যুৎ ও দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধি ঘরে ঘরে হাহাকার তৈরি করেছে। সীমিত আয়ের মানুষ ও দিনমজুরদের অনাহারে অর্ধাহারে বেঁচে থাকার উপক্রম। চা শ্রমিকেরা মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে,  রাজপথে নেমেছে। আগামীতে ফ্যাসিস্ট আওয়ামী সরকারের কবল থেকে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে ও দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে সর্বস্তরের মানুষ রাজপথে নেমে আসবে। ভারতের দাসত্ব করা আওয়ামী লীগকে প্রতিরোধ করতে জিয়ার সূর্য সৈনিকেরা দেশপ্রেমিক জনতাকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলবে ইনশাআল্লাহ।

২৬নং ওয়ার্ড বিএনপির আহবায়ক এম. এ হকের সভাপতিত্বে ও সেলিম আহমদ রনি এবং মখলিসুর রহমান জুবেদের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট -১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য প্রার্থী, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির।

তিনি বলেন, দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা আওয়ামী লীগের মূল উদ্দেশ্য নয়। তাদের মূল উদ্দেশ্য হলো বৈধ-অবৈধ যেকোনো উপায়ে ক্ষমতার মসনদ কুক্ষিগত করে রাখা। ভারতের দাসত্ব করা ও জনগণকে বোকা বানানো। তাই তারা ক্ষমতার মসনদ টিকিয়ে রাখতে মানুষের উপর স্টিমরোলার চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের কয়েকদিন আগে তিনি সিলেটে এসেছিলেন। তাঁকে সম্মান জানাতে লক্ষ লক্ষ জনতা বাঁধ ভাঙা স্রোতের মতো রাস্তায় নেমে এসেছিলো। এইরকম জননন্দিত নেত্রী পৃথিবীতে বিরল।
সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ সাখাওয়াত হাসান জীবন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, মহানগর বিএনপির আহবায়ক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী, জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এড. এমরান আহমদ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি নাসিম হোসেন, মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক  হুমায়ুন কবির শাহীন, যুগ্ম আহবায়ক  রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, সদস্য -জিয়াউল হক জিয়া, মুকুল আহমেদ মুর্শেদ, আক্তার রশীদ, নুরুল আলম সিদ্দিকী খালেদ, আফজাল উদ্দিন, আবুল কালাম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক আব্দুল আহাদ খান জামাল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক আব্দুল ওয়াহিদ সোহেল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব দেওয়ান জাকির হোসেন খান, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব আজিজ হোসেন আজিজ, বিএনপি নেতা লোকমান আহমদ, মহানগর জাসাসের আহবায়ক তাজ উদ্দিন মাসুম, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি আহসান, যুবদল নেতা মোস্তফা মোঃ ইসহাক সরকার, আলী আকবর রাজন, আজহার আলী অনিক। পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন পারভেজ আহমদ। বিজ্ঞপ্তি

শেয়ার করুন